সেই ১৯০৩ এবং ১৯০৪ সালে ভারতের পাঞ্জাবের গুরুদাসপুর জেলার সুপ্রিমকোর্টের কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে মৌলভি করম উদ্দীন জিহলমীর সাথে দ্বিপাক্ষিক কথোপকথন অবস্থায় ও মাননীয় ম্যাজিস্ট্রেট জনাব Lala Athmaram এর সম্মুখে মির্যা কাদিয়ানী নিজের ধর্মমত নিম্নরূপ ব্যক্ত করেন যা তারই পুত্রধন মির্যা বশির আহমদ এম.এ রচিত ‘সীরাতে মাহদী’ বইয়ের তৃতীয় খন্ডের ৬৯৫ নং বর্ণনা অনুসারে নিচে অনুবাদ করা হল। মির্যা গোলাম আহমদ কাদিয়ানী (১৮৩৯-১৯০৮ইং) বলেছেন :

১। ঈসা (আ:) মারা গেছেন।

২। ঈসা (আ:) ক্রুসবিদ্ধ হয়েছেন এবং তাঁকে বেহুঁশ অবস্থায় শূলি থেকে নামানো হয়েছিল।

৩। ঈসা (আ:) সশরীরে আকাশে যাননি।

৪। ঈসা (আ:) আকাশ থেকে নাযিল হবেন না এবং কারো সাথে লড়াইও করবেন না।

৫। এমন কোনো মাহদী হবেনা যিনি দুনিয়ায় এসে খ্রিষ্টান আর অন্যান্য বিধর্মীর সাথে যুদ্ধ করবেন এবং অমুসলিমদেরকে হত্যা করবেন ও ইসলামের বিজয় আনয়ন করবেন।

৬। এই যুগে [শেষ যামানায়] জিহাদ করা অর্থাৎ ইসলাম প্রচারের উদ্দেশ্যে লড়াই করা সম্পূর্ণ হারাম।

৭। এটা একদমই ভুল কথা যে, মসীহ মওঊদ (ঈসা) এসে ক্রুশ ভাঙ্গবেন এবং শুয়োর মারবেন।

৮। আমি মির্যা গোলাম আহমদ মসীহ মওঊদ, মাহদী, ইমামুয্যামান, মুজাদ্দিদ, প্রতিবিম্ব স্বরূপ রাসূল, আল্লাহর নবী এবং আমার উপর খোদার ওহী নাযিল হয়ে থাকে।

৯। মসীহ মওঊদ [মির্যা কাদিয়ানী] এই উম্মতের বিগত সমস্ত আউলিয়া হতে শ্রেষ্ঠ।

১০। খোদাতালা মসীহ মওউদ (মির্যা কাদিয়ানী)’র সত্তায় সমস্ত নবীর গুণাবলী শ্রেষ্ঠত্ব একত্র করে দিয়েছেন।

১১। কাফের জাহান্নামে সর্বদা থাকবেনা।

১২। ইমাম মাহদী কুরাইশ বংশীয় হবেনা।

১৩। উম্মতে মুহাম্মদিয়ার মসীহ আর ইসরাইলী মসীহ দুইজনই ভিন্ন ভিন্ন ব্যক্তি এবং মসীহে মুহাম্মদী [মির্যা কাদিয়ানী] তিনি ইসরাইলী মসীহ (ঈসা) চেয়ে শ্রেষ্ঠ।

১৪। হযরত ঈসা (আ:) তিনি প্রকৃতপক্ষে কোনো মৃত ব্যক্তিকে জীবিত করেননি।

১৫। হযরত মুহাম্মদ (সা:)-এর মেরাজ স্বশরীরে হয়নি।

১৬। খোদাতালার ওহী হযরত মুহাম্মদ (সা:)-এর মাধ্যমে বন্ধ হয়ে যায়নি। (নাউযুবিল্লাহ)।

পরিশেষ, কাদিয়ানীদের উল্লিখিত ইসলাম পরিপন্থী ধর্ম-বিশ্বাস এর আলোকে প্রমাণিত হল যে, কাদিয়ানীরা ইসলামের নামে ‘আহমদীয়া মুসলিম জামাত’ গঠন করে নামায রোজা হজ্ব জাকাত সহ ইসলামের সব আমল পালন করলেও তারা মূলত ইসলাম এবং মুসলমানের গন্ডির বাহিরে বলে গণ্য হবে। কেননা সর্বপ্রথম আকীদা তারপর আমল। যাদের সত্য গ্রহণ করার মত অন্তর আছে তারা বিষয়টি ভেবে দেখবে ও নিরপেক্ষভাবে সত্য-মিথ্যা যাচাই করে প্রকৃত ইসলামে ফিরে আসবে।

  • লিখক, শিক্ষাবিদ ও গবেষক

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here